Bangladesh
নেপালে বাংলাদেশের বিমান বিধ্বস্ত হয়ে নিহত কমপক্ষে ৫০

12 Mar 2018

#

ঢাকা, ১২ মার্চ ২০১৮ : বাংলাদেশের বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি বিমান আজ সোমবার ৭১ জন আরোহী নিয়ে নেপালের ত্রিভূবন আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হলে কমপক্ষে ৫০ জন নিহত এবং ১৭ জন আহত হয়েছেন।

নিখোঁজ ৪ জনেরও জীবিত থাকার সম্ভাববনা নেই।

 

কাঠমান্ডুর ত্রিভূবন আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দরের জেনারেল ম্যানজোর রাজ কুমার ছত্রেকিকে উদ্ধৃত করে দেশটির ইংরেজি নিউজ পোর্টাল মাই রিপাবলিকা বলেছে ৭১ জন আরোহীর মধ্যে অন্তত ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে তারা আশঙ্কা করছেন।

 

তারা এখনও উদ্ধার কাজ শেষ করতে পারেননি। তবে বিমানটি এমনভাবে পুড়েছে যে কারও জীবিত উদ্ধার করার সম্ভবনা নেই।

 

নেপালের একজন সেনা কর্মকর্তার দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সও একই খবর দয়িছে। বিমানবন্দরের নিরাপত্তাকর্মী ও নেপাল সেনানাবাহনী ঘটনাস্থলে উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছ।

 

কাঠমান্ডুর ত্রিভূবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমান  ওঠানামা আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে।    

 

কাঠমান্ডুতে বাংলাদশে দূতাবাসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ওই উড়োজাহাজের যাত্রীদের মধ্যে ১৭ জনকে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়ছে। জরুরি যোগাযোগের জন্য একটি হটলাইন খুলেছে দূতাবাস কর্তৃপক্ষ। 

 

ইউএস-বাংলা কর্তৃপক্ষ বলছে, ড্যাশ-৮ কউি৪০০ মডেলের ওই উড়োজাহাজের ৭১ জন আরোহীর ৬৭ জন ছিলেন যাত্রী, বাকিরা কুরু। যাত্রীদের মধ্যে বাংলাদশের ৩২ জন, নেপালের ৩৩ জন, চীনের একজন  ও মালদ্বীপের  একজন  ছিলেন বলে এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

 

ইউএস-বাংলার ফ্লাইট বিএস ২১১ ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে রওনা হয় সোমবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টা ৫২ মিনিটে ।

 

নেপাল সময় বেলা ২টা ২০  মিনিটে  কাঠমান্ডুতে নামার সময় পাইলট নিয়ন্ত্রণ হারালে উড়োজাজটি রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে এবং আগুন ধরে যায়।

 

নেপালের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের ডিজি সঞ্জিব গৌতমের বরাত দিয়ে কাঠমান্ডু পোস্ট লিখেছে ড্যাশ-৮ কউি৪০০ মডেলের ওই উড়োজাহাজ ত্রিভূবন নামার কথা ছিল রানওয়ের দক্ষিণ দিক দিয়ে। কিন্তু সেটি নামার চেষ্টা করে উত্তর দিক দিয়ে।

 

ধারণা করা হচ্ছে পাইলট কোনো ধরনরে কারগরি জটিলতায় পড়েছিলেন।

 

উড়োজাহাজটি থেকে ২৫ জনকে উদ্ধার করে কাঠমান্ডু মেডিকেল কলজে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল। সেখানে নেওয়ার পর তাদের আটজনকে  মৃত ঘোষণা করা হয়।

 

বাংলাদেশের কোনো উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়ে হতাহতের সবচেয়ে বড় ঘটনাটি ঘটে ১৯৮৪ সাল।

 

ওই বছর ৫ অগাস্ট বাংলাদশে বিমানের একটি ফকার এফ-২৭ বিরূপ আবহাওয়ার মধ্যে ঢাকা বিমানবন্দরের কাছে বিধ্বস্ত হলে ৪৯ জন নিহত হন।

 

Image: Youtube Grab




Video of the day
More Bangladesh News
Recent Photos and Videos

Web Statistics