Entertainment
'বীরাঙ্গনা' ঃ অত্যাচারিতাদের অকথিত কাহিনী

01 Sep 2013

#

ঢাকা, সেপ্টেম্বর ১ ঃ উনিশশো একাত্তর সালে স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় পাকিস্তানি সেনাদের পাশবিক লালসার শিকার, বাঙ্গালি মহিলাদের অকথিত কাহিনীকে কেন্দ্র করে তৈরি করা নাট্য প্রযোজনা, 'বীরাঙ্গনাঃ ব্রেভ ওম্যান'-য়ের প্রিমিয়ার সম্প্রতি হয়ে গেল লিবারেশন ওয়ার মিউজিয়ামে।অত্যাচারিতা বেশ কিছু মহিলার মুখ থেকে সরাসরি শোনা কাহিনীর ভিতের উপর দাঁড়িয়ে আছে গবেষণাধর্মী এই প্রযোজনাটি।

 লন্ডন-কেন্দ্রিক নাট্য ও শিল্প সংস্থা কমলা কলেক্টিভ-প্রযোজিত এই নাটকটি শুরু হয়েছে একটি তথ্যচিত্র দিয়ে। 

 
একক অভিনয়ের মধ্য দিয়ে এই বীরাঙ্গনাদের চরিত্রায়ণ দর্শকদের জানিয়েছে হৃদয় বিদারী একাধিক কাহিনী। কেড়ে নেওয়া গল্প-কথন কৌশলে প্রতিটি ঘটনাকে এমনভাবে  উপস্থিত করা হয়েছে এই প্রযোজনায় যে, অত্যাচারিতাদের হাহাকার বেদনার সঙ্গে খুব সহজেই সংযোগ ঘটে দর্শক মনের।
 
গল্পগুলির অসম্ভব শক্তিশালী সংলাপ পরিষ্কারভাবে এবং সজোরে দর্শকদের কাছে পৌঁছে দেয় অত্যাচারিতাদের ভয়াবহ অবস্থার কথা। 
 
শুধু ধর্ষণে নয়, এই নারীদের সম্ভ্রম হানি হয়েছে  পাক সেনাদের করা \'কুত্তা\' সম্বোধন থেকে নিগৃহীতার যন্ত্রণায় তাদের পরিতৃপ্তির মর্ষকামী উল্লাসে মেতে ওঠা পর্যন্ত, প্রতি পদে।
 
মঞ্চে আলোকে ব্যবহার করা হয়েছে ভাষার মত। লাল আলোয় স্নাত এক বীরাঙ্গনা যখন মঞ্চে আবির্ভূত হন, তখন সেই আলো তাঁর রক্তপাত, ছিন্নভিন্ন সম্ভ্রমের দ্যোতক হয়ে দাঁড়ায়।
 
  চরম অপমানের সেই স্মৃতি ৪২ বছর পরেও এতটুকু ম্লান হয়ে যায়নি এই নারীদের মনে। তবু সেই সব কাহিনী কাহিনী এখনও আসেনি প্রকাশ্যে। দু লক্ষ ধর্ষিতা মহিলা, তরুনী-কিশোরীর আত্মবিসর্জনের মূল্য এখনও দিতে পারিনি আমরা, চিহ্নিত করতে পারিনি স্বাধীনতা সংগ্রামের সেই সব বীরাঙ্গনাদের যাঁদের আত্মবিসর্জনের মূল্য স্বাধীনতা সংগ্রামীদের আত্মবলিদানের থেকে কম নয়।। তাই নাট্য প্রযোজনাটির উদ্দেশ্য, এইসব নারীদের স্বাধীনতা সংগ্রামী হিসেবে সম্মান জানিয়ে তাঁদের স্বীকৃতি দেওয়া।
 
মহিলাদের দৃষ্টিকোন থেকে তাঁদের অকথিত গল্প বলাই কমলা কলেক্টিভের উদ্দেশ্য। সমিনা লুৎফার লেখা, লিসা গাজি-অভিনীত এবং ফিলিজ ওঝকান নির্দেশিত এই অসাধারন এবং প্রশংসনীয় প্রযোজনাটি পরিশ্রমী গবেষণার মধ্য দিয়ে সামাজিক বিধিনিষেধকে অগ্রাহ্য করে চাপা পড়ে থাকা মানুষের কাহিনী তুলে এনেছে।
 
স্বাধীনতা সংগ্রামের এইসব অবহেলিত বীরাঙ্গনাদের কথা বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে নাটকটি বাংলাদেশ ছাড়াও দেখান হবে ইংল্যান্ডে, এই বছরের নভেম্ভর এবং ২০১৪ সালের মার্চ মাসে।



Video of the day
More Entertainment News
Recent Photos and Videos

Web Statistics