Bangladesh
গাজীপুরের সেফহোম থেকে ১৭ নিবাসী পালানোর পর উদ্ধার ১৪

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 09 Sep 2018

14 people who escaped from Gazipur home recovered
নিজস্ব প্রতিনিধি ঢাকা, সেপ্টেম্বর ৯ : গাজীপুরে মহিলা, শিশু ও কিশোরী হেফাজতিদের নিরাপদ আবাসন কেন্দ্র (সেফহোম) থেকে ১৭ নিবাসী পালিয়ে যাওয়ার পর মনিবার বিভিন্ন স্থান থেকে ১৪ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

নিখোঁজ রয়েছে তিনজন। শুক্রবার রাতে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মোগড়খাল এলাকায় অবস্থিত ওই কেন্দ্রে থেকে পালিয়ে যাওয়া সবাই নারী, কিশোরী ও শিশু।


মহিলা ও শিশুবিষয়ক অধিদফতর সূত্র জানায়, ওই আবাসন কেন্দ্রের দোতলার জানালার গ্রিল ভেঙে এবং খাটের বিছানা দিয়ে ছাদের সঙ্গে বাউন্ডারি ওয়াল পর্যন্ত সিঁড়ি তৈরি করে একে একে ১৭ নিবাসী পালিয়ে যায়। রাত পৌনে ১২টার দিকে আবাসন কেন্দ্রের লোকজন টের পেয়ে দুজনকে ছাদ থেকে আটক করে এবং বাকিরা পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে জয়দেবপুর থানা পুলিশ কেন্দ্রের আশপাশ এলাকা থেকে আরও চারজনকে উদ্ধার করে। শনিবার সকালে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর এলাকা থেকে পুলিশ আটজনকে উদ্ধার করেছে। আবাসন কেন্দ্রের কর্মকর্তারা গাজীপুর থেকে পুলিশ নিয়ে মির্জাপুর থানা থেকে আটক আটজনকে আনার জন্য রওনা হয়েছেন। শনিবার বেলা ১টা পর্যন্ত তিনজন নিবাসীর সন্ধান পাওয়া যায়নি। এই কেন্দ্রে ৩৪ জন নিবাসী রয়েছেন। এদের মধ্যে ৩২ জন নারী ও কিশোরী এবং দুটি শিশু।
শনিবার সকালেই মির্জাপুর রেল স্টেশনের কাছ থেকে শিশুসহ নয় তরুণীকে উদ্ধার করা হয়। তারা হলেন- রাইজু (২৬), রিনা (২০), সুরমা (২০), জিয়াসমিন (১৮), শাবানা (১৬), বৃষ্টি (১৬) তানিয়া (১৪) ও লামিয়া (৭)। তারা তারেক তালুকদার (১৭) নামে এক কিশোরের সঙ্গে মির্জাপুরে আসেন। তারেক সিরাজগঞ্জ জেলার সলঙ্গা উপজেলার তিন নান্দিনা গ্রামের আব্দুল হাই তালুকদারের ছেলে।


স্থানীয়রা জানায়, সকালে মির্জাপুর রেল স্টেশনে তারেক তালুকদারের সঙ্গে আট তরুণীকে দেখতে পেয়ে স্থানীয় লোকজন রোহিঙ্গা নারী ভেবে আটক করেন। পরে স্থানীয়রা তাদের মির্জাপুর থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন।


পুলিশ জানায়, সকালে বিমানবন্দর রেল স্টেশন থেকে তারেক শিশুসহ আট তরুণী নিয়ে রেলযোগে মির্জাপুর স্টেশনে নামে। স্থানীয় লোকজন তাদের কথাবার্তা ও আচরণে সন্দেহ করে রোহিঙ্গা ভেবে আটক করে পুলিশে হস্তান্তর করে।




Video of the day
More Bangladesh News
Recent Photos and Videos

Web Statistics