Bangladesh
তফসিল ঘোষণায় আওয়ামী লীগের সমর্থন

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 08 Nov 2018

Awami League supports tafasil support
নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা, নভেম্বর ৮ : জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আপত্তি জানালেও বৃহস্পতিবার একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করায় সমর্থন জানিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

সংলাপ চললেও রাজনৈতিক মতভেদ না ঘোচার মধ্যে বৃহস্পতিবার একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। তার আগের দিন গতকাল বুধবার নির্বাচন ভবনে গিয়ে সিইসিসহ নির্বাচন কমিশনারদের সঙ্গে দেখা করে নিজেদের অবস্থান জানায় আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল। ১৬ সদস্যের এই দলের নেতৃত্বে ছিলেন দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এইচ টি ইমাম।


আওয়ামী লীগের আগে বিভিন্ন দল ইসিতে গিয়ে নিজেদের অবস্থান জানিয়ে এসেছে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট, বাম গণতান্ত্রিক জোট সংলাপ শেষ না হওয়া পর্যন্ত তফসিল ঘোষণা না করার আহ্বান জানিয়েছে। অন্যদিকে তফসিল না পেছানোর দাবি জানিয়েছে জাতীয় পার্টি ও যুক্তফ্রন্ট।


ইসিতে বৈঠকের পর আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচ টি ইমাম সাংবাদিকদের বলেন, তফসিলের বিষয়ে ইসি যে সিদ্ধান্ত নেবে তার প্রতি তাদের সমর্থন রয়েছে। নির্বাচন কবে, কখন হবে, তা ইসি নির্ধারণ করবে। আজ বৃহস্পতিবার তফসিল ঘোষণার কথা ইসির, তাতে সরকারের পক্ষ থেকে সমর্থন রয়েছে আমাদের। ইসি স্বাধীন, সাংবিধানিক ও শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান। আমরা তফসিল আগানো বা পেছানোর কথা বলিনি। যখনই কমিশন তফসিল দেবে, তা আমরা সহযোগিতা করে যাব।


তফসিল না পেছালে আন্দোলনের যে হুমকি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের রয়েছে তা নিয়ে সরাসরি কোনো মন্তব্য করতে চাননি প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা ইমাম। তিনি বলেন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তাদের দায়িত্ব পালন করবে। নির্বাচন কমিশন তাদের বিষয়টি দেখবে; সাধারণ মানুষ তা মোকাবেলা করবে। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) নিয়ে বেশিরভাগ রাজনৈতিক দল আপত্তি জানালেও ভোটারদের প্রশিক্ষণ দিয়ে সীমিত আকারে তা ব্যবহারের পক্ষে মত জানিয়েছে আওয়ামী লীগ।


সেনা মোতায়েন নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে ইমাম বলেন, বৈঠকে সেনা মোতায়েন নিয়ে আলোচনা হয়নি। তবে অতীতে যেভাবে সেনা মোতায়েন হয়েছে, এবারও সেভাবেই রাখার পক্ষে মত আওয়ামী লীগের। আমরা সেনা মোতায়েনের বিপক্ষে নই। বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তার জন্যে রিটার্নিং কর্মকর্তার অধীনে তা মোতায়েন থাকবে। তারা স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসাবে থাকবে, ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট চাইলে তা নিয়োজিত হবেন।
 




Video of the day
More Bangladesh News
Recent Photos and Videos

Web Statistics