Bangladesh
বিএনপির হরতাল প্রভাব ফেলল পরীক্ষার্থীদের ওপর

09 Nov 2013

#

ঢাকা, নভেম্বর ৯: বিএনপির বাংলাদেশব্যাপী হরতালের কথা ভেবে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট পরীক্ষার দিন নভেম্বর ১০, ১১ ও ১২ থেকে বদলে নভেম্বর ১৪, ১৬ ও ২১ তারিখে করা হয়েছে।

 এই কথা শনিবার সাংবাদিকদের জানান শিক্ষা মন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ।

 
এই বছর ১,৯০২,৭৪৬জন পরীক্ষার্থী নয়টি বোর্ডের অধীনে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট পরীক্ষায় বসছে।
 
১,৫৮৭,৩১৩জন পরীক্ষার্থী আটটি বোর্ডের অধীনে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষায় বসছে। ৩১৫,৪৩৩জন পরীক্ষার্থী মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে পরীক্ষায় বসছে।
 
 বিএনপির দেশব্যাপী হরতাল শুরুর আগের দিনে অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতীরা শনিবার ঢাকার যাত্রাবাড়ী ও বাড্ডা এলাকায় দুটি বাসে অগ্নিসংযোগ করে।
 
হরতালকারীরা উত্তর বাড্ডা বাস স্ট্যান্ডে সকাল নয়টা দশ নাগাদ একটি বাসে আগুন লাগায়। যাত্রাবাড়ী থানার কাছে আরেকটি বাসে আগুন ধরানো হয় সকাল নয়টা পনেরো নাগাদ।
 
একুশে টিভি ভবনের সামনে বেশ কয়েকটি ককটেলও বিস্ফোরণ করা হয়।
 
  বিএনপির নেতৃত্বে ১৮-পার্টির জোট শনিবার জানায় তারা তাদের ৭২-ঘণ্টার হরতালের সময়সীমা বাড়িয়ে ৮৪-ঘণ্টা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
 
 শুক্রবার বিএনপি জানিয়েছিল তারা রবিবার থেকে ৭২ ঘণ্টার হরতাল পালন করবে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের নেতৃত্বে পরবর্তী সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত করার দাবীতে।
 
 বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তাঁদের এই কর্মসূচীর ঘোষণা করেন শুক্রবার অপরাহ্নে এক দলীয় বৈঠক শেষে, যার সভাপতিত্ব করেন দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া তাঁর গুলশন দপ্তরে।
 
"এই হরতালের শেষে আমরা আরো কঠিন কর্মসূচী শুরু করব," ফখরুল বলেন।
 
"এই হরতাল রবিবার সকাল ছয়টা থেকে শুরু হবে ও বুধবার বিকেল ছয়টায় শেষ হবে," তিনি জানান।
 
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার বলেন খালেদাকে পাঠানো তাঁর নিমন্ত্রণপত্র এখনো বৈধতা রাখে।
 
"আমার পাঠানো খালেদা জিয়াকে আলোচনায় বসার নিমন্ত্রণ এখনো বৈধ আছে। এখনো আলোচনার দ্বার খোলা আছে," হাসিনা বলেন। 
 
ফখরুল বুধবার জানান তাঁর দল শেষ মুহূর্ত অবধি আশাবাদী থাকবে যে সরকার তাদের সাথে আলোচনায় বসবে।
 
"বিএনপি নির্বাচনের মাধ্যমে সত্তাবদলে বিশ্বাস করে। কিন্তু এখন পুরো প্রক্রিয়াই অনিশ্চিত," ফখরুল বলেন।
 
"আমরা তাও শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত আশা রাখব যে সরকার আমাদের সাথে আলোচনায় বসবেন," তিনি বলেন।
 
অন্যদিকে, হাসিনার একমাত্র পুত্র সাজিব ওয়াজেদ জয় বুধবার বলেন বিএনপির হরতাল কোন রাজনৈতিক প্রতিবাদের ভাষা নয়।  
 
"আমরা বিএনপির ডাকা আরও তিন দিনের হরতাল দেখলাম, যার বেশিভাগই ছিলো বোমাবাজি এবং অগ্নিসংযোগের মত হামলায় পরিপূর্ণ। বেশ কিছু শিশুসহ অনেক নিরীহ মানুষ আহত বা নিহত হয়েছেন, যাদের যানবাহনে পুড়িয়ে মারা হয়েছে অথবা তাদের উপর বোমা হামলা হয়েছে। এর কি কোন প্রয়োজন ছিলো?" জয় লেখেন তাঁর ফেসবুকে।  
 
"যখন আমরা বারংবার তাদের সংলাপে বসবার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছি, আমরা যখন তাদের সর্বোচ্চ ছাড় দিচ্ছি, যখন আমরা তাদের সংলাপের দাবী পূরণ করছি এবং যখন তারা নিজেরাও বলছেন যে তারা সংলাপ চান; তখন কেন তারা নিরীহ মানুষদের আঘাত করছেন, বিশেষ করে নিষ্পাপ শিশুদের," তিনি বলেন।
 
"এসব তো কোন রাজনৈতিক প্রতিবাদের ভাষা নয়। এ হলো সন্ত্রাসবাদ। অনুগ্রহ করে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসবাদকে "না" বলতে আমার সাথে যোগ দিন," বলেন জয়। 



Video of the day
More Bangladesh News
Recent Photos and Videos

Web Statistics