Bangladesh
নির্বাচনে পরাজয়ের কারণ বিএনপিকেই ভেবে দেখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 10 Jan 2019

BNP should see why it lost the Bangladesh Polls, says Sheikh Hasina
নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা, জানুয়ারি ১১: নির্বাচনে বিএনপি’র পরাজয়ের কারণ তাদেরকেই ভেবে দেখার আহবান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আন্দোলনে যারা ব্যর্থ হয় তারা নির্বাচনে জয়লাভ করতে পারে না, এটাই হল বাস্তবতা।

২০১৩, ১৪ এবং ১৫ সালে বিএনপি-জামাতের সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের কঠোর সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘তারা তাদের অবরোধ ধর্মঘট শেষ পর্যন্ত কিন্তু আর প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়নি। কারণ জনগণ আর তাদের কর্মসূচিকে ধর্তব্যের মধ্যেই নেয়নি। জনরোষের কারণে তাদের সকল আন্দোলন ব্যর্থতায় পর্যবসিু হয়।’


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে রাজধানীর ফার্মগেটস্থ কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির ভাষণে একথা বলেন। ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দেওয়ার পর পাকিস্তানী সেনাবাহিনীর হাতে আটক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের এই দিনেই পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্তি পেয়ে তাঁর স্বাধীন স্বদেশ ভূমে ফিরে আসেন। আর এর মাধ্যমেই বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের বিজয় পূর্ণতা লাভ করে।

 

শেখ হাসিনা তাঁর ভাষণে বিএনপি’র নির্বাচনে ব্যর্থতার কারণ তাদেরকেই অনুসন্ধান করে দেখার আহবান জানিয়ে এ সম্পর্কে তাঁর নিজস্ব অভিমত ব্যক্ত করেন। কেবল যোগ্য প্রার্থীকে মনোনয়ন না দেওয়ায় বিএনপি যে সব আসন হারিয়েছে তার গুটিকতক উদাহরণ টেনে শেখ হাসিনা বলেন, ধামরাইয়ে আতাউর রহমান খানের ছেলে জিয়াউর রহমান, আমরা ধরেই নিয়েছিলাম তিনি মনোনয়ন পেলেতো জিতবেনই। কিন্তু তাকে না দিয়ে যে বেশি টাকা দিল তাকে মনোনয়ন দেওয়া হল। নারায়ণগঞ্জে তৈমুর আলম খন্দোকারকে মনোনয়ন দেওয়া হলো না, চট্টগ্রামে মোর্শেদ খানকে না দিয়ে যে ভাল টাকা দিল তাকেই মনোনয়ন দিল।


এসব মনোনয়ন বঞ্চিতদের অনেকে তাঁর (শেখ হাসিনা) সঙ্গে দেখা করে এসব কথা জানিয়ে গেছেন বলে উল্লেখ করে বিদেশে অবস্থানরত বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সন তারেক রহমানের এ সবের সঙ্গে সম্পৃক্ততার ইঙ্গিত করে বলেন, ‘ভাইয়াকে আবার পাউন্ডে সেখানে পেমেন্ট করতে হবে।’


১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মাধ্যমেই স্বাধীনতা পূর্ণতা পায় উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে তাঁরা জানতে পারেননি বঙ্গবন্ধু কি বেঁচে আছেন, না নেই। অথচ পাকিস্তানের কারাগার থেকে দেশে ফিরে বঙ্গবন্ধু তাঁর পরিবারের সদস্যদের কাছে না গিয়ে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ভাষণের মাধ্যমে জাতিকে যে দিক নির্দেশনা দিয়ে গেছেন, সে অনুযায়ীই আওয়ামী লীগ সরকার পরিচালনা করছে। তিনি বলেন, ‘জাতির পিতার আদর্শ বুকে ধারণ করেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।’




Video of the day
More Bangladesh News
Recent Photos and Videos

Web Statistics