Finance
গাড়ি বানাতে চায় বাংলাদেশ

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 03 Mar 2019

Bangladesh wants to manufacture car
নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা, মার্চ ৩: সাধারণভাবে গাড়ি আমদানি নিরুৎসাঘিু করতে বাংলাদেশ উচ্চ হারে শুল্ক আদায় করে এলেও এখন দেশেই গাড়ি তৈরি ও রপ্তানির পরিকল্পনা করছে সরকার। এ লক্ষ্যে আগামী ছয় সপ্তাহের মধ্যে একটি নীতিমালা চূড়ান্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

শুক্রবার রাজধানীর বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটিতে শুরু হওয়া ইন্দো-বাংলা অটোমেটিভ শোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আমরা এ বিষয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) সঙ্গে কাজ করছি। তারা ইতোমধ্যে একটা খসড়া তৈরি করেছে। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে আমরা সেটা দেখব।’
বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী এম আমিনুল ইসলাম বলেন, ওই নীতিমালার খসড়া চূড়ান্ত করতে তারা কাজ করছেন। অটোমোবাইল যন্ত্রাংশ, টায়ার, লুব্রিক্যান্ট প্রস্তুতকারক ৩৫টি ভারতীয় কোম্পানির পাশাপাশি ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর অটোমোটিভ টেকনোলজির মত প্রতিষ্ঠান চার দিনের এ প্রদর্শনীতি অংশ নিচ্ছে।  এ আয়োজনের অংশ হিসেবে ভারতের অটোমোবাইল খাতের শীর্ষ উদ্যোক্তাদের একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশের সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকও করবেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এখন কিছু ব্র্যান্ডের টু-হুইলার (মোটরবাইক) সংযোজন করলেও চার চাকার গাড়ি তৈরি করা যাচ্ছে না নীতিমালার অভাবে। নীতিমালা হয়ে গেলে তার ধারাবাহিকতায় আইনও প্রণয়ন করা হবে।


বাংলাদেশে গাড়ি তৈরি ক্ষেত্রে সরকার যৌথ বিনিয়োগকে উৎসাহ দেবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, যেসব দেশে বাংলাদেশ শুল্কমুক্ত সুবিধা পায় সেখানে গাড়ি রপ্তানির সুযোগ প্রশস্ত হবে সেক্ষেত্রে। গাড়ি নির্মাতা কোম্পানিগুলো যাতে বাংলাদেশে কারখানা খুলতে উৎসাঘিু হয়, সেজন্য সরকার ভর্তুকি দিতে পারে বলেও মনে করেন টিপু মুনশি।


তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ  নেুৃত্বাধীন বর্তমান সরকার ‘খুবই ব্যবসাবান্ধব’। বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে যা যা দরকার তা করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফলে এ বিষয়ে তিনি খুবই আশাবাদী। আমরা যদি আমাদের এখানে গাড়ির যন্ত্রাংশ বানাতে পারি, তাহলে আমরা এখানে গাড়িও বানাতে পারব।
টায়ার তৈরির কোম্পানিগুলোকেও বাংলাদেশে কারখানা খোলার আহ্বান জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।  




Video of the day
More Finance News
Recent Photos and Videos

Web Statistics