Finance
একদিনে হালখাতা চান পুরান ঢাকার স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 15 Apr 2019

Old Bangladesh jewellery businessman wants Halkhata in one day
নিজস্ব প্রতিনিধিঢাকা, এপ্রিল ১৫ : পহেলা বৈশাখে হালখাতা করা পুরান ঢাকার শাঁখারিবাজার ও তাঁতীবাজারের ব্যবসায়ীদের মধ্যে একটি রীতি হয়ে দাঁড়িয়েছে। বছরের পর বছর ধরে বৈশাখের দিন হালখাতা করে আসছেন এ অঞ্চলের স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা। পহেলা বৈশাখ ও হালখাতা নিয়ে রয়েছে দুই রকম মত। এক শ্রেণির ব্যবসায়ী সম্প্রদায় ১৪ এপ্রিল এবং আরেক শ্রেণি ১৫ এপ্রিল হালখাতা ও পহেলা বৈশাখ পালন করেন।

যুগের পর যুগ ধরে এভাবে হালখাতা পালন করা হলেও এখন এই রীতি থেকে বেরিয়ে আসতে চান শাঁখারিবাজার ও তাঁতীবাজারের ব্যবসায়ীরা। হিন্দু, মুসলিম সব ধর্মের ব্যবসায়ীরাই চাচ্ছেন সরকার থেকে হালখাতার একটি নির্দিষ্ট তারিখ নির্ধারণ করে দেয়া হোক।


রোববার শাঁখারিবাজার ও তাঁতীবাজারের অন্তত অর্ধশতাধিক ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথা বলে এমন অভিমু পাওয়া গেছে। তাদের দাবি, দুই দিনে হালখাতা হওয়ার কারণে ব্যবসায়ীদের বেশকিছু সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। একদিন হালখাতা হলে এসব সমস্যা হবে না।


সরেজমিনে পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী শাঁখারিবাজার ও তাঁতীবাজার ঘুরে দেখা যায়, এক শ্রেণির ব্যবসায়ীরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ধুয়ে-মুছে পরিচ্ছন্ন করে তুলেছেন। কোনো কোনো প্রতিষ্ঠানে নতুন করে রঙ করা হচ্ছে। আরেক শ্রেণির ব্যবসায়ীরা ফুল দিয়ে দোকান সাজিয়ে হালখাতা করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। আর তাদের খরিদ্দাররা বকেয়া পরিশোধ করছেন।


জানা যায়, যারা মুসলিম তারা ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখ ও হালখাতা পালন করেন। কিন্তু হিন্দু ব্যবসায়ীরা ১৫ এপ্রিল হালখাতা করবেন।
হালখাতা করা এক স্বর্ণ ব্যবসায়ী বলেন, আমরা সরকারি নিয়ম মেনে আজ পহেলা বৈশাখ পালন করছি। আর পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে হালখাতা করছি। কিন্তু এখানকার বেশিরভাগ ব্যবসায়ী পরদিন (১৫ এপ্রিল) হালখাতা করবেন। একই জায়গায় ব্যবসা করে হালখাতার দু’রকম রীতি এটা খুব একটা ভালো দেখায় না। সবাই মিলে একসঙ্গে হালখাতা করলে ভালো হতো।


এদিকে সনাতন ধর্মাবলম্বী ব্যবসায়ীরা রোববার পহেলা বৈশাখ ও হালখাতার সব প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন। এ লক্ষ্যে তারা তাদের দোকান ধুয়ে-মুছে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করছেন। কেউ কেউ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে নতুন রঙও করেছেন।




Video of the day
More Finance News
Recent Photos and Videos

Web Statistics