Column
ফাঁস হল ফিলফুল ফুজুলের গোপন ছক

21 Sep 2015

#

বাংলাদেশের গোয়েন্দা বিভাগ সম্প্রতি 'হিলফুল ফুজুল আল ইসলামি' নামে একটি স্বল্প পরিচিত সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের ধ্বংসাত্মক পরিকল্পনার কথা জানতে পেরেছে।

ধ্বংসাত্মক কর্মসূচীর প্রথম দফায়  এরা বন্দর শহর চট্টগ্রামের একশোটির বেশি নৌ এবং উপকূল রক্ষী ঘাঁটি এবং যমুনা অয়েল অ্যান্ড ইস্টার্ন রিফাইনারিজের মত তৈল শোধনাগার উড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করছিল।    জলোচ্ছ্বাস এবং ঝড়ের মত প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সময় এই ধ্বংসাত্মক কান্ড ঘটানোর তালে ছিল এরা, যাতে করে পুরো ব্যাপারটিকে প্রাকৃতিক তান্ডবের ফল হিসেবে দেখানো যায়।

 
২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হিলফুল ফুজুল আল ইসলামি তাদের কাজকর্ম ধীরেসুস্থে চালালেও কখনও তাদের নির্দিষ্ট লক্ষ্য থেকে সরে আসেনি। যাতে তাদের কেউ চিহ্নিত করতে না পারে, তার জন্য এই সন্ত্রাসবাদী দলের সদস্যরা নাকি অনলাইনে সক্রিয় থেকে সাংবাদিক, ব্যবসায়ীদের পরিচয় এবং বিশেষ করে খবরের কাগজের নাম ব্যবহার করছিল। অন্য যে সব  সন্ত্রাসবাদী সংগঠন এই দলের সঙ্গে সহযোগিতা করে চলে তাদের তালিকা এই রকমঃ
 
১. দাওয়াত এ ইসলাম
 
২. হিজবুত ত্বাওয়াহিদ

৩. হিজবুত তাহির 
বাংলাদেশ ছাড়াও হিলফুল ফুজুল অন্য অনেক দেশে বৈধ এবং অবৈধ-দু'ভাবেই টাকা খাটাচ্ছে। এদের লগ্নি আছে ব্যাংকে, ইনস্যুরেন্সে, আবাসন, টেলিকম শিল্পে, আমদানি-রপ্তানি ব্যবসায়ে, স্বাস্থ্য পরিষেবায় বস্ত্র শিল্পে এবং আরও বহু জায়গায়। এত কিছুর পরেও অস্ত্র চোরা চালান, মাদক পাচার এবং ভূয়ো নোট চালানেও যুক্ত এরা।
 
৪. আনসারুল্লা বাংলা টিম
 
৫. হরকতুল জিহাদ
 
৬. জে এম বি
 
৭. লশকর এ তৈবা
 
৮. বাংলাদেশ জামাত এ ইসলাম
 
৯. জামাত-এ-আরাশ
 
১০. জইস-এ-মুহাম্মদ
সন্ত্রাসের এই পরিকল্পনা যে জানা গেছে তার থেকে বোঝা যায় যে, বর্তমান সরকার জাতীয়বাদবিরোধী শক্তিগুলিকে নির্মূল করার জন্য দ্রুততার সঙ্গে কাজ করে চলেছে। এর থেকে আরও প্রমাণ হয় যে, যতই শত্রুরা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নকে বানচাল করার চেষ্টা করুক না কেন, বাংলাদেশে শেষ পর্যন্ত ধর্মনিরপেক্ষতার মূল্যবোধেরই জয় হবে।
 
১১. ইকতাদুল-তুল্লাহ-আল মুল্লেমিন
 
১২. জামাত আল পাকিস্তান
 
১৩. জামাত-এ-আল ইসলাম আল পাকিস্তান
 
১৪. হিজাউ-উল-মুহাজিদিন অফ জম্মু
 
১৫. দাওয়াকাফেলা
 
১৬. ইসলামিক সলিডারিটি ফ্রন্ট
 
১৭. রোহিংগা ইসলামিক ফ্রন্ট 
 
১৮. আরাকান আর্মি
 
১৯. আরাকান কালচারাল সোসাইটি
 
২০. রোহিংগা সলিডারিটি অর্গানাইজেশন
 
২১. ন্যাশনাল লিগ ফর বার্মা
 
২২. ন্যাশনাল ইউনাইটেড পার্টি অফ আরাকান
 
২৩. বার্মা লিবারেশন আর্মি
 
২৪. আরাকান মুভমেন্ট
 
২৫. আরাকান পিপল'স ফ্রিডম পার্টি
 
২৬. আরাকান রোহিংগা ইউনিয়ন
 
২৭. ভারতের নাগা রেবেল পার্টি এবং উলফা
 
 বাংলাদেশ ছাড়াও হিলফুল ফুজুল অন্য অনেক দেশে বৈধ এবং অবৈধ-দু'ভাবেই টাকা খাটাচ্ছে। এদের লগ্নি আছে ব্যাংকে, ইনস্যুরেন্সে, আবাসন, টেলিকম শিল্পে, আমদানি-রপ্তানি ব্যবসায়ে, স্বাস্থ্য পরিষেবায় বস্ত্র শিল্পে এবং আরও বহু জায়গায়। এত কিছুর পরেও অস্ত্র চোরা চালান, মাদক পাচার এবং ভূয়ো নোট চালানেও  যুক্ত এরা। 

নিরাপত্তা বাহিনীর কঠোর নজরদারির জন্য এই সংগঠনটি প্রকাশ্যে তাদের কাজকর্ম চালাতে পারেনি বটে কিন্তু অনলাইনের মাধ্যমে সাফল্যের সঙ্গে নিজেদের রাজনৈতিক কনভেনশন করেছে। ঠিক কোন কোন জায়গা থেকে এরা তাদের কনফারেন্সগুলি সংগঠিত করছে নিরাপত্তা বাহিনী এখনও তা বার করতে পারেনি, তবে সতর্ক দৃষ্টি বজায় রেখে তা করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

     এই সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের অনেকেই কাশ্মির, গাজিপুরের কড়া নিরাপত্তা বলয়ে থাকা কারাগারে বন্দী, কিন্তু সেখান থেকেই তারা এই সব পরিকল্পনা করে যাচ্ছে বলে সরকারের কাছে খবর আছে। এদের কর্মপদ্ধতির পরিকল্পনার পুরোটাই যুদ্ধাপরাধে যুক্ত ইসলামিক সংগঠন এবং জেলবন্দী সন্ত্রাসবাদী নেতাদের মস্তিষ্কপ্রসূত।
 
সন্ত্রাসের  এই পরিকল্পনা যে জানা গেছে তার থেকে বোঝা যায় যে, বর্তমান সরকার জাতীয়বাদবিরোধী শক্তিগুলিকে নির্মূল করার জন্য দ্রুততার সঙ্গে কাজ করে চলেছে। এর থেকে আরও প্রমাণ হয় যে, যতই শত্রুরা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নকে বানচাল করার চেষ্টা করুক না কেন, বাংলাদেশে শেষ পর্যন্ত ধর্মনিরপেক্ষতার মূল্যবোধেরই জয় হবে। 



Video of the day
More Column News
Recent Photos and Videos

Web Statistics