Bangladesh
রোহিঙ্গাঃ মিয়ানমারকে চাপ দেওয়ার জন্য রাষ্ট্রপতি চাইলেন রাষ্ট্রপতি

27 Sep 2017

#

ঢাকা, সেপ্টেম্বর ২৭ঃ রোহিঙ্গা সমস্যায় এইবার মেটানোর লক্ষ্যে মিয়ানমারের উপরে চাপ বাড়াতে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ

সুইজারল্যান্ড সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন।


সুইজারল্যান্ডের নতুন রাষ্ট্রদূত রেনে হলেনস্টাইন রাশ্ত্রপতিওর সাথে সাক্ষাৎ করলে এই বিষয়গুলি আলোচনা হয়েছে।

হলেনস্টাইন গতকাল বঙ্গভবনে গিয়ে তার পরিচয়পত্র পেশ করেন রাষ্ট্রপতির কাছে।

রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন এই সাক্ষাৎ এর বিষয় সাংবাদিকদের জানান যে আবদুল হামিদ নতুন রাষ্ট্রদূতকে এই দেশের স্বাগত জানিয়েছেন ও এই কর্মে নিযুক্ত হওয়ার জন্য অভিনন্দন জানান।

ওনার দায়িত্ব থাকাকালীন রাষ্ট্রপতি মনে করেন যে দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও সম্প্রসারিত হবে।

 

দুইজনের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রসঙ্গও আলোচনা হয়।

 

“রোহিঙ্গা সঙ্কটের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশের জন্য এটি একটি বড় সমস্যা। রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধে এবং তাদের দেশে ফেরা নিশ্চিত করতে মিয়ানমারের ওপর চাপ অব্যাহত রাখতে তিনি সুইজারল্যান্ড সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন," রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন।

 

গত ২৫ অগাস্ট থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৪ লাখ রোহিঙ্গা মানুষ এই দেশে আশ্রয় নিয়েছেন।

 

তারা মিয়ানমারে সহিংসতার মুখে পরে এই দেশে পালিয়ে এসেছেন।

 

মিয়ানমারকে এই মানুষদের ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য বার বার আবেদন করা হলেও ফল হয়নি।

 

শেখ হাসইনা নিজেও বহুবার এই মানুষদের ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য প্রতিবেশী দেশকে আহ্বান করেছেন।

 

রোহিঙ্গাদের সাহায্যের বিষয় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় বাংলাদেশের অবস্থানের পাশে আছে বলে মনে করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে অত্যাচারের ফলে বহু মানুষ গত কিছুদিনে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে এসেছে।

 

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭২তম অধিবেশনে অংশগ্রহণ শেষে শুক্রবার নিউ ই্য়র্কে এক সংবাদ সম্মেলনে নিজের বক্তব্য রাখার সময় হাসিনা এই কথাগুলি বলেছেন।

 

হাসিনা বলেনঃ "এ অধিবেশনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নিকট রোহিঙ্গা সমস্যা তুলে ধরা ও এর সমাধানে বিশ্ববাসীর সহযোগিতা নিশ্চিত করা ছিল আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।”

 

উনি বলেনঃ " “সমস্ত রাষ্ট্রদূতরা তারা কিন্তু রোহিঙ্গাদের ওখানে যায়। তারা তাদের অবস্থা দেখে, কথা বলে। এরপর প্রত্যেকেই সহানুভূতিশীল মন নিয়েই বিষয়টা দেখেছে।"

 

উনি বলেন সকল দেশ বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের বিষয়টিতে সহানুভূতিশীল ও সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।
 




Video of the day
More Bangladesh News
Recent Photos and Videos

Web Statistics