Bangladesh

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা শাস্তিযোগ্য অপরাধ: প্রধান বিচারপতি প্রধান বিচারপতি
ছবি: সংগৃহিত প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা শাস্তিযোগ্য অপরাধ: প্রধান বিচারপতি

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 25 Nov 2022, 06:44 pm

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা, ২৫নভেম্বর ২০২২ : প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেছেন, যেকোনো ধর্ম অবমাননা বা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

তিনি বলেন, সব মানুষের ধর্ম ও নিরাপত্তার অধিকার সমান। আইনের বিচারে সব ধর্মই সমান মর্যাদাসম্পন্ন। তাই যে কোনো ধর্ম অবমাননা বা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত শাস্তিযোগ্য অপরাধ। বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সমিতি ভবনে আয়োজিত বিজয়া পুনর্মিলনী-২০২২ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেন, ধর্ম মানুষের দৈনন্দিন জীবনে পথ দেখাতে সাহায্য করে এবং আধ্যাত্মিকতার পরিপূর্ণতা দান করে। তিনি বলেন, বাংলাদেশের সংবিধানে উল্লেখ আছে, এ দেশের সব মানুষের ধর্ম ও নিরাপত্তার অধিকার সমান। আইনের বিচারে সব ধর্মই সমান মর্যাদাসম্পন্ন। তাই যে কোনো ধর্ম অবমাননা বা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত শাস্তিযোগ্য অপরাধ: প্রধান বিচারপতি।

অজ্ঞতাকে বিপজ্জনক উল্লেখ করে প্রধান বিচারপতি বলেন, ধর্মের জন্য সব থেকে বিপজ্জনক হলো অজ্ঞতা। এ অজ্ঞতাই মানুষের সঙ্গে মানুষের বিভেদ তৈরি করে।

তিনি বলেন, প্রত্যেক ধর্মের মানুষ যদি নিজ নিজ ধর্মের ধর্মগ্রন্থ সঠিকভাবে খোলা মন নিয়ে পাঠ করে সে সঙ্গে ধর্মীয় বিধানগুলো পূর্ণ হ্নদয়াঙ্গম করে, তাহলে অজ্ঞতার অন্ধকার কেটে যাবে। পাশাপাশি ধর্মীয় বাণী ও ধর্মের উন্মেষ জাগ্রত থাকবে।

তিনি বলেন, ধর্ম যার যার কিন্তু বাংলাদেশ আমাদের সবার। রাষ্ট্র সবার না হলে নাগরিকরা রাষ্ট্রের সঙ্গে একাত্মতা অনুভব করতে পারবে না। ফলে রাষ্ট্র নাগরিকদের থেকে আনুগত্য আশা করতে পারবে না। আমাদের সংস্কৃতি সব ধর্মকে ও মানুষকে এক সারিতে আনতে পেরেছে বলে সব ভেদাভেদ ভুলে ভাষার জন্য আন্দোলন করে আমরা জয়ী হয়েছি।

মহান মুক্তিযুদ্ধ বাংলাদেশের সবার অহংকার। এ মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে জীবন বিসর্জন দিয়েছেন মুসলিম, হিন্দু বৌদ্ধ, খ্রিষ্টানসহ সব সম্প্রদায়ের মানুষ। তিনি বলেন, দেশের মানুষকে নিয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠ বা লঘিষ্ঠ যারা বলে তারা সংবিধানের স্প্রিটের বিরুদ্ধে বলে। ৭১কে তারা কীভাবে দেখেন আমার জানা নেই।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ১৯৩২ সালের ৬ নভেম্বর সিরাজগঞ্জ বঙ্গীয় মুসলিম সম্মেলনে জাতীয় কবি নজরুল ইসলাম লিখেছিলেন, আমার ধর্ম যেন অন্য ধর্মকে আঘাত না করে। অন্যের মর্ম বেদনার কারণ না হয়। তিনি আরও বলেছিলেন, ইসলামের মূলনীতি সহনশীলতা, ভিন্ন ধর্মকে আঘাত করা ইসলামের দৃষ্টিতে বড় নিন্দনীয়। যুব সমাজের উদ্দেশ্য তিনি বলেছিলেন মানুষ হয়ে মানুষের সম্মান যদি দিতে না পারেন তা হলে কোথায় আপনি মুসলমান।

সর্বশেষ শিরোনাম

পবিত্র শবে কদর আজ Sat, Apr 06 2024

অচিরেই পার্বত্য চট্টগ্রামের পরিস্থিতি শান্ত হবে: কাদের Sat, Apr 06 2024

টাকা লুট আর সক্ষমতা জানান দিতেই কেএনএফের হামলা: র‌্যাব Sat, Apr 06 2024

পরিবারের কাছে ফিরেছেন সোনালী ব্যাংকের অপহৃত সেই ম্যানেজার Sat, Apr 06 2024

উত্তপ্ত বান্দরবান, পরিস্থিতি পরিদর্শনে যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী Fri, Apr 05 2024

বান্দরবানে অপহৃত ব্যাংক ম্যানেজার উদ্ধার Fri, Apr 05 2024

জনপ্রতিনিধিদের জনগণের সেবা করার মাধ্যমে ভবিষ্যত ভোট নিশ্চিত করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর Fri, Apr 05 2024

বান্দরবানে চলছে যৌথবাহিনীর অভিযান Fri, Apr 05 2024

তারেক রহমান নেতৃত্বে থাকলে বিএনপি এগুতে পারবে না: ওবায়দুল কাদের Fri, Apr 05 2024

মেট্রোরেলে ১ জুলাই থেকে ভ্যাট কার্যকর Thu, Apr 04 2024