Bangladesh

বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্য নিয়ে আরও গবেষণা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড
সংগৃহিত মঙ্গলবার জাতির পিতার ৪৮তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন

বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্য নিয়ে আরও গবেষণা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 16 Aug 2023, 11:28 pm

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা, ১৬ আগস্ট ২০২৩: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নৃশংসভাবে সপরিবারে হত্যার নেপথ্যের ঘটনাগুলো আরও গবেষণা করে বের করা প্রয়োজন।

মঙ্গলবার বিকেলে জাতির পিতার ৪৮তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আয়োজিত আলোচনা সভায় এ কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের আগে কোন কোন দেশের কূটনীতিকরা ঢাকায় আনাগোনা করেছিলেন এবং পরবর্তীকালে কোন কোন দেশের লোকেরা কী কী বলেছিলেন এসব নিয়ে বিস্তর গবেষণা করা উচিত।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার আগে দেশে একটা অস্থিরতা সৃষ্টি করা হয়েছিল। বাসন্তীর কাহিনি প্রচার করা হয়েছিল। তখন বহু লোক দেশে আনাগোনা শুরু করে এবং একটা অস্থিরতার সৃষ্টি হয়। আজকের বাংলাদেশেও সেরকম একটা অস্থিরতা সৃষ্টির প্রয়াস চলছে। ওই সময়ের সঙ্গে আজকের বাংলাদেশের একটা সাদৃশ্য দেখা যাচ্ছে।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে অভাবনীয় অগ্রগতির পরেও বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের আগে আমরা যে ধরনের অস্থিরতা দেখেছিলাম, মনে হয় এখন আবার সে ধরনের অবস্থা সৃষ্টির জন্য কেউ কেউ উঠেপড়ে লেগেছে। সুতরাং আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। আমাদের আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করতে হবে। বিভিন্ন ধরনের যে অপপ্রচার শুরু হয়েছে তা প্রতিহত করতে আমাদের আরও সক্রিয় হতে হবে। ’৭৫-এর পুনরাবৃত্তি যেন না হয় সে ব্যাপারে আমাদের সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

ড. মোমেন বলেন, বঙ্গবন্ধু একটি আদর্শ, একটি চেতনা, একটি প্রতিষ্ঠান। তিনি আমাদের একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র দিয়ে গেছেন, একটি জাতিসত্তা সৃষ্টি করে গেছেন। শুধু একটা স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র তৈরি করেই তিনি ক্ষান্ত হননি, মাত্র সাড়ে তিন বছরে একটা সদ্য স্বাধীন দেশকে শক্ত ভিত্তির ওপর প্রতিষ্ঠিত করার জন্য যা যা প্রয়োজন জাতির পিতা সব করে গেছেন।
তিনি বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তীকালে যতগুলো আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ছিল, অল্পদিনে সবগুলোর সদস্যপদ অর্জন করেছিল বাংলাদেশ। এমনকি জাতিসংঘের সদস্যপদও বাংলাদেশ অর্জন করতে সক্ষম হয়।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর খুব কম দেশ আছে যারা এত অল্প সময়ের মধ্যে এতগুলো রাষ্ট্রের স্বীকৃতি অর্জন করতে পেরেছে। বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী নেতৃত্ব এবং তার ব্যক্তিত্বের কারণেই এটা সম্ভব হয়েছিল। শুধু স্বীকৃতি অর্জন নয়, মাত্র দু’মাসের মাথায় বন্ধুপ্রতিম ভারতের সৈন্যদের ফেরত পাঠাতে সক্ষম হয়েছিলেন। এ জাতিকে একটি শক্ত ভিত্তির ওপর প্রতিষ্ঠিত করার জন্য বঙ্গবন্ধু মাত্র ৯ মাসের মধ্যে একটি সুন্দর, শক্তিশালী সংবিধান দিয়ে গেছেন।

সর্বশেষ শিরোনাম

পবিত্র শবে কদর আজ Sat, Apr 06 2024

অচিরেই পার্বত্য চট্টগ্রামের পরিস্থিতি শান্ত হবে: কাদের Sat, Apr 06 2024

টাকা লুট আর সক্ষমতা জানান দিতেই কেএনএফের হামলা: র‌্যাব Sat, Apr 06 2024

পরিবারের কাছে ফিরেছেন সোনালী ব্যাংকের অপহৃত সেই ম্যানেজার Sat, Apr 06 2024

উত্তপ্ত বান্দরবান, পরিস্থিতি পরিদর্শনে যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী Fri, Apr 05 2024

বান্দরবানে অপহৃত ব্যাংক ম্যানেজার উদ্ধার Fri, Apr 05 2024

জনপ্রতিনিধিদের জনগণের সেবা করার মাধ্যমে ভবিষ্যত ভোট নিশ্চিত করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর Fri, Apr 05 2024

বান্দরবানে চলছে যৌথবাহিনীর অভিযান Fri, Apr 05 2024

তারেক রহমান নেতৃত্বে থাকলে বিএনপি এগুতে পারবে না: ওবায়দুল কাদের Fri, Apr 05 2024

মেট্রোরেলে ১ জুলাই থেকে ভ্যাট কার্যকর Thu, Apr 04 2024