Bangladesh

শেখ হাসিনার আশ্রয়ণ প্রকল্প বিশ্বে অদ্বিতীয় : ড. পিয়ারসন আশ্রয়ণ
ফাইল ছবি

শেখ হাসিনার আশ্রয়ণ প্রকল্প বিশ্বে অদ্বিতীয় : ড. পিয়ারসন

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 10 Aug 2023, 01:19 pm

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা, ১০ আগস্ট ২০২৩ : বিশিষ্ট নরওয়েজিয়ান শিক্ষাবিদ ও গবেষক ড. অ্যাটলি পিয়ারসন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্রয়ণ প্রকল্প বিশ্বে অদ্বিতীয়। কারণ, সরকারি জমিতে স্থায়ীভাবে বাড়ি নির্মাণ করে ঠিকানাহীন মানুষকে মালিকানা দেওয়ার নজির আর কোথাও নেই।

ড. অ্যাটলি এক নিবন্ধে লিখেছেন, ‘আজকে, আশ্রয়ণ শুধু বাংলাদেশেই নয় সারা বিশ্বে একটি অনন্য প্রকল্প। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পিছিয়ে পড়া মানুষের সাহায্যার্থে নানা উদ্যোগ থাকলেও সরকারি জমিতে স্থায়ী বাড়ি নির্মাণ করে ঠিকানাহীন মানুষকে মালিকানা এবং সরকারি খরচে বিদ্যুৎ ও স্যানিটেশন সুবিধাসহ বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়ার আর কোন নজির নেই।’

নেপালের অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘রাতোপতি’তে ৮ আগস্ট ‘উন্নয়নশীল বিশ্বের জন্য অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নের দৃষ্টান্ত হিসাবে বাংলাদেশের আশ্রয়ণ প্রকল্প" শিরোনামে দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক গবেষণা, কূটনীতি এবং ভূ-রাজনীতিতে অভিজ্ঞ অ্যাটলি পিয়ারসনের নিবন্ধটি প্রকাশিত হয়।

নিবন্ধ অনুসারে, শেখ হাসিনা মডেল ফর ইনক্লুসিভ ডেভেলপমেন্ট, যা দারিদ্র্য ও ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে অগ্রগতির এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা করেছে, বর্তমানে আশ্রয়ণ প্রকল্প হিসাবে যথাযথভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। ‘কেউ পিছিয়ে থাকবে না’ এই নীতির ওপর ভিত্তি করে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই উদ্যোগের মাধ্যমে গৃহহীন জনগোষ্ঠীর জন্য আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের এক নতুন স্তর উদ্বোধন করেন।

ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে বুধবার আরও ২২ হাজার ১০১টি পরিবার নতুন ঘর পেয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের চতুর্থ পর্যায়ের দ্বিতীয় ধাপে এসব বাড়ি দেওয়া হয়।

বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে এসব আংশিক সুসজ্জিত বাড়ি ও ২০০ একর বিনামূল্যে জমি দেওয়া হয়। একই সঙ্গে দেশের ১২৩টি উপজেলাকে সম্পূর্ণ ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘মুজিববর্ষে বাংলাদেশের একজন নাগরিকও গৃহহীন বা ভূমিহীন থাকবে না' এই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে ২০২০ সালের মে মাসে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় পরিচালিত আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পটি শুরু হয়। ২০২১ সালের জানুয়ারিতে এই প্রকল্পের প্রথম ধাপে ৬৩ হাজার ৯টি একক পরিবারের বাড়ি হস্তান্তর করেন প্রধানমন্ত্রী। এটি চলার সময়, ৭৪৩ ব্যারাকে ৩ হাজার ৭১৫ পরিবারকে পুনর্বাসনের জন্য রাখা হয়েছিল। একই বছরের জুন মাসে প্রধানমন্ত্রী দ্বিতীয় পর্যায়ের ৫৩ হাজার ৩৩০টি বাড়ি হস্তান্তর করেন। তৃতীয় পর্যায়ে ৬৫ হাজার ৬৭৪টি বাড়ি নির্মাণ করা হয়। চলতি বছরের মার্চ মাসে চতুর্থ ধাপের ৩৯ হাজার ৩৬৫টি বাড়ি হস্তান্তর করা হয়।

সর্বশেষ শিরোনাম

পবিত্র শবে কদর আজ Sat, Apr 06 2024

অচিরেই পার্বত্য চট্টগ্রামের পরিস্থিতি শান্ত হবে: কাদের Sat, Apr 06 2024

টাকা লুট আর সক্ষমতা জানান দিতেই কেএনএফের হামলা: র‌্যাব Sat, Apr 06 2024

পরিবারের কাছে ফিরেছেন সোনালী ব্যাংকের অপহৃত সেই ম্যানেজার Sat, Apr 06 2024

উত্তপ্ত বান্দরবান, পরিস্থিতি পরিদর্শনে যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী Fri, Apr 05 2024

বান্দরবানে অপহৃত ব্যাংক ম্যানেজার উদ্ধার Fri, Apr 05 2024

জনপ্রতিনিধিদের জনগণের সেবা করার মাধ্যমে ভবিষ্যত ভোট নিশ্চিত করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর Fri, Apr 05 2024

বান্দরবানে চলছে যৌথবাহিনীর অভিযান Fri, Apr 05 2024

তারেক রহমান নেতৃত্বে থাকলে বিএনপি এগুতে পারবে না: ওবায়দুল কাদের Fri, Apr 05 2024

মেট্রোরেলে ১ জুলাই থেকে ভ্যাট কার্যকর Thu, Apr 04 2024