South Asia

'স্বাধীন' সিন্ধুদেশের দাবিতে শেখ হাসিনা-মোদীর ছবি নিয়ে বিক্ষোভ পাকিস্তানে সিন্ধ বিক্ষোভ
twitter.com/shafiburfat সিন্ধুদেশের দাবিতে শেখ হাসিনা-মোদীর ছবি নিয়ে বিক্ষোভ

'স্বাধীন' সিন্ধুদেশের দাবিতে শেখ হাসিনা-মোদীর ছবি নিয়ে বিক্ষোভ পাকিস্তানে

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 29 Jan 2021, 12:17 am

ইসলামাবাদ, ২৯ জানুয়ারী: 'স্বাধীনতার' দাবিতে বিক্ষোভ চলছে পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশে। বিভিন্ন জায়গায় মিছিল ও অবস্থান বিক্ষোভ করে নিজেদের দাবির পক্ষে আন্দোলন করছেন হাজার হাজার মানুষ। গত ১৭ জানুয়ারি, জি এম সাইদের ১১৭তম জন্মবার্ষিকীতে সিন্ধুপ্রদেশের জামশোরো জেলার সান এলাকায় সেই রকম একটি মিছিলে অভূতপূর্ব দৃশ্য দেখা গেল--  হাতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্টপ্রধানদের ছবি নিয়ে স্বাধীনতার স্লোগান দেওয়া আন্দোলনকারীরা বিশ্বনেতাদের হস্তক্ষেপের আবেদন করছিলেন। প্রসঙ্গত, আধুনিক সিন্ধি জাতীয়তাবাদের অন্যতম উদ্‌গাতা ছিলেন জি এম সাইদ।

সিন্ধকে সিন্ধু সভ্যতা এবং বৈদিক ধর্মের আঁতুড়ঘর বলে দাবি করে বিক্ষোভকারীরা অভিযোগ করেন, প্রথমে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদীরা সিন্ধকে অবৈধভাবে অধিকার করে এবং পরে, ১৯৪৭ সালে, তাকে তারা 'শয়তান' ইসলামি পাকিস্তানের হাতে তুলে দেয়। 

ওই বিক্ষোভের অন্যতম নেতা ও জে সিন্ধ মুত্তাহিদা মাহাজের চেয়ারম্যান সফি মুহাম্মাদ বুরফাত বলেন, ‌অতীত থেকে বর্তমান, সবসময়ই সিন্ধুপ্রদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতির উপর বর্বরোচিত আক্রমণ হয়েছে। তবে শত আঘাত সত্ত্বেও নিজেদের ইতিহাসকে স্মরণ রেখে নিজস্ব সংস্কৃতি গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছেন এখানকার মানুষ। বিভিন্ন ধরণের সংস্কৃতি, ধর্মীয় রীতিনীতি, ভাবধারা এবং ভাষাকে আত্মস্থ করে এখানকার মানুষ চিরকাল পারস্পরিক সৌহার্দ্যের মধ্যে বাস করেছেন। কিন্তু, প্রথমে ব্রিটিশ ও পরে পাকিস্তানের সরকার সিন্ধুপ্রদেশের সেই আদর্শকে ধ্বংস করার ক্রমাগত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

শফি মুহাম্মদ বুরফাত আরও বলেন, "পূর্ব এবং পশ্চিমের ধর্ম, দর্শন এবং সভ্যতার ঐতিহাসিক সম্মিলন আমাদের মাতৃভূমি সিন্ধকে মানুষের ইতিহাসে এক বিশিষ্ট স্থান দিয়েছে।

সংবাদ সংস্থা এ এন আই-কে তিনি বলেন, "এই সিন্ধ থেকেই ভারতের নামকরণ হয়েছে। যে সিন্ধের নাগরিকরা শিল্প-বাণিজ্য, দর্শন, নৌবিদ্যা, গণিত এবং মহাকাশবিজ্ঞানে পথ দেখিয়েছিলেন, তাঁরা এখন ইসলামের নাম নেওয়া পাকিস্তানি পাঞ্জাবিদের সামরিক শক্তির শৃংখলায় শৃংখলিত।"

পাকিস্তানকে প্রাকৃতিক সম্পদ শোষণকারী এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী বলে বর্ননা করে বুরফাত জানিয়েছেন, সিন্ধে বেশ কয়েকটি জাতীয়তাবাদী দল আছে যারা মুক্ত সিন্ধের কথা বলে এবং বিষয়টি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মঞ্চেও নিয়ে গেছে।

তিনি বলেন, "আমাদের দেশ বিশ্বশান্তি, মানুষের একতা এবং মানব উন্নয়নে বিশ্বাস করে। পৃথিবীর বুকে আমাদের দেশ হাজার বছর ধরে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে থেকেছে। কিন্তু আজ এই দেশ সামরিক শক্তির দাপটে পাঞ্জাবি ঔপনিবেশিকতার দাসে পরিণত হয়েছে। সিন্ধের জনগণ সন্ত্রাসবাদী রাষ্ট্র পাকিস্তানের দাস হয়ে থাকতে চায়না। তাই ফ্যাসিস্ট পাকিস্তানের থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য আমাদের যে সংগ্রাম, তার পাশে দাঁড়ানোর জন্য সারা বিশ্বের কাছে আমরা আবেদন জানাচ্ছি।"

সিন্ধিদের জন্য পৃথক সিন্ধুদেশের দাবি প্রথম তোলা হয় ১৯৬৭ সালে জি এম সাইদ এবং পির আলি মহম্মদ রাশিদের নেতৃত্বে। গত কয়েক দশকে বিরাট সংখ্যক সিন্ধি জাতীয়তাবাদী নেতা-কর্মী এবং ছাত্র নিখোঁজ হয়ে গিয়েছেন অথবা তাঁদের উপর নির্যাতন করে হত্যা করেছে পাকিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।

সর্বশেষ শিরোনাম

অনির্দিষ্টকালের জন্য পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করল ভারত Sun, Mar 24 2024

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি ভারতের Tue, Mar 05 2024

বেইলি রোডে আগুনের ঘটনায় শোক জানিয়ে শেখ হাসিনাকে মোদীর চিঠি Sun, Mar 03 2024

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে অংশীদার হতে পেরে ভারত গর্বিত: দ্রৌপদী মুর্মু Wed, Feb 28 2024

চিকিৎসা পর্যটন বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদার করছে Sat, Feb 24 2024

মোদি ও হাসিনার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কিছু দ্বিপাক্ষিক চুক্তি Mon, Feb 19 2024

শেখ হাসিনাকে টেলিফোনে অভিনন্দন জানালেন মোদী Tue, Jan 09 2024

বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে যা বলল ভারত Fri, Jan 05 2024

বাংলাদেশে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন দেখতে চায় ভারত Sat, Dec 30 2023

এডিবি'র দক্ষিণ এশিয়া উন্নয়ন উদ্যোগের নেতৃত্ব দেবেন টাকিও কোনিশি Thu, Dec 14 2023