All Column

Seven die in a day as Bangladesh's Covid-19 toll increases to 27,785

We must respond to communal instigators: Home Minister

Case against Dhaka North Mayor Atiqul Islam dismissed

21 lakh women in social safety net

Religious violence: PM Hasina tells Home Minister to initiate action

যুদ্ধাপরাধ বিচারে হস্তক্ষেপঃ চাই বিরুদ্ধ প্রচার

চরম ত্যাগ আর অনেক রক্তের বিনিময়ে পাকিস্তানের থাবা থেকে মুক্ত হওয়ার পর বাংলাদেশে একটি স্বাধীন ও নিরপেক্ষ বিচার ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছিল। স্বাধীনতার পর গত ৪১ বছরে এই বিচার ব্যবস্থা নিয়ে এতদিন কোনও প্রশ্ন ওঠেনি।

খালেদা জিয়ার প্রবন্ধ ও কয়েকটি প্রশ্ন

গত ৩১ শে জানুয়ারি ওয়াশিংটন টাইমসে বি এন পি নেত্রী খালেদা জিয়ার নাম দিয়ে একটি প্রবন্ধ ছাপা হয়েছে। প্রবন্ধটি খালেদা জিয়া নিজেও লিখে থাকতে পারেন, আবার অন্য কেউ তাঁর হয়ে লিখে দিতেও পারে। ঘটনা যাই হোক, প্রবন্ধটির বক্তব্যের দায়িত্ব তিনি অস্বীকার করতে পারেননা। দু\'বার দেশের প্রধান মন্ত্রী থাকা এবং বর্তমানে বিরোধী দল নেত্রীর ভূমিকা পালন করা খালেদা জিয়া প্রবন্ধটিতে যা লিখেছেন, তাতে সংসদের ভিতরে- বাইরে প্রতিবাদ ও সমালোচনার ঝড় উঠেছে। সমাজের বিভিন্ন অংশ এবং বিভিন্ন পেশার মানুষের পক্ষ থেকে এমন কি প্রবন্ধটিকে দেশদ্রোহমূলক আখ্যা দিয়ে তাঁর শাস্তির দাবিও তুলেছেন। সংসদে একই অভিযোগ তুলে বেশ কিছু সদস্য বলেছেন, যদি বি এন পি নেত্রী বাংলাদেশেকে একটি স্বাধীন, সার্বভৌম রাষ্ট্র বলে মনে করেন, তা হলে তাঁর উচিৎ প্রবন্ধটিতে দেশের বর্তমান পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে মার্কিণ যুক্তরাষ্ট্রের হস্তক্ষেপ চাওয়ার জন্য জনগনের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করা। কেন তাঁর প্রবন্ধটির কারনে এত শোরগোল ? ...

যুদ্ধাপরাধ বিচারের দ্বিতীয় রায় ও গণ প্রতিক্রিয়া

উনিশশো একাত্তরে স্বাধীনতা সংগ্রাম চলার সময়কার জঘন্য যুদ্ধাপরাধের স্মৃতি চার দশক পরেও তাড়া করে ফেরে বাংলাদেশের মানুষকে। তাই সেই সব অপরাধীদের মধ্যে এখনও যারা জীবিত এবং বহাল তবিয়তে আছে, দেশের মানুষ মনে প্রানে চান, তাদের শাস্তি হোক। ওয়ার ক্রাইমস ট্রাইব্যুনালের সামনে জামাত-এ-ইসলামির সহ সাধারন সম্পাদক আবদুল কাদের মোল্লার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলি ওই দলেরই এক সময়কার নেতা,পলাতক আবুল কালাম আজাদের নামে থাকা অভিযোগের থেকেও গুরুতর। এর আগে, ইন্টার ন্যাশনাল ক্রাইমস ট্রাইব্যুনাল-২ আজাদের মৃত্যুদন্ড ঘোষণা করেছে। কিন্তু সেই একই ট্রাইব্যুনালে এ\\\'বার মোল্লার জন্য যাবজ্জীবন সাজার (৩০ বছর) হুকুম হয়েছে। দেশের মানুষ এটা মেনে নিতে পারছেননা। তাঁদের প্রশ্ন,যেখানে অপেক্ষাকৃত লঘু অপরাধে অপরাধী আজাদের চরম দন্ডের রায় হয়েছে, সেখানে কী ভাবে মোল্লার মত আরও বড় যুদ্ধাপরাধী্কে ছাড় দিয়ে তার জন্য বরাদ্দ হয় যাবজ্জীবন কারাবাসের শাস্তি ? কেন এই দ্বিমুখী নীতি ? এটাই এখন রহস্য। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের ডিরেকটর ডঃ ইফতেকারুজ্জামান বলেছেন, একজন মুক্ত চিন্তার নাগরিক এবং স্বাধীনতা সংগ্রামের আদর্শ ও মূল্যবোধের ...

Khaleda Zia’s article and some questions

Khaleda Zia has written an article, or may be she got it written by someone and published in Washington Times on January 31, 2013. Whether she has written it herself or somebody else has done it for her, she can not disown responsibility for doing this. The article has set off a series of protests and criticism. She was two times Prime Minister of the country and is now the opposition leader. She has written something that has raised a storm over tea cup in the parliament and has become talk of the town, with cross sections of people belonging to different professions terming it seditious and demanding her punishment. She came under verbal attacks from the parliamentarians who accused her of committing seditious offence by seeking US intervention into Bangladesh affairs and advised her to seek apology from the people for this article published in the Washington Times if she really believes in the sovereignty and independence of Bangladesh. Why has her article created such a furore in the ...

Second Judgment of the Tribunal and public reactions

People of the country want to see befitting punishment meted out to the war criminals of 1971. The charges brought against Assistant Secretary General of Jamaat-e-Islami(JEI) Abdul Quader Molla were more serious and grave than those brought against the fugitive ex-JEI leader Abul Kalam Azad. The International Crimes Tribunal-2 awarded death sentence to Abul Kalam Azad earlier. But the same tribunal has now served Abdul Quader Molla with life sentence (30 years in jail). People of the country can not accept this discrepancy - a war criminal of lesser magnitude Abul Kalam Azad would get death sentence while leniency would be shown to Molla, a war criminal of higher stature, by awarding him life sentence. Why this double standard? This has remained a mystery. Dr Iftekharuzzaman, Executive Director of Transparency International Bangladesh, has said that as a free thinking citizen and a flag bearer of the liberation war spirit and values, he can not accept this verdict.

Jamaat’s politics: four decades ago and now

The country is once again witnessing rampage and attacks unleashed by the Jamaat activists in Dhaka, Chittagong, Rajshahi, Dinajpur and other places with incessant bomb blasts and torching of vehicles. Their violent and subversive activities remind the people of what they did four decades ago when they perpetrated inhuman brutalities killing innocent people, destroying their homestead and raping women to suppress the freedom movement and foil the birth of independent Bangladesh. This also substantiates the fact that Jamaat believes in resorting to violence to reach its desired goal.

JEI flexes muscle

In what seemed like a coordinated onslaught on police, activists of Jamaat-e-Islami (JEI) and its student front Islami Chhatra Shibir (ICS) swooped on police on January 28 simultaneously in Dhaka, Chittagong, Rajshahi, Dinajpur and a number of places. The attackers blasted bombs and set ablaze over 200 vehicles. 150 JEI activists were arrested and 70 police personnel sustained injury. “The attacks are designed to send a clear signal to the government that any decision to hang the senior JEI leaders now facing trial on war crimes charges could unravel the fragile political status quo and lead the country to uncontrollable chaos and anarchy”, said a JEI central leader.

Interference in independent functioning of judicial system

After securing liberation from Pakistani clutches through extreme sacrifices and blood shed, Bangladesh established an independent system of judiciary neutrality of which was never questioned by anybody in the last 41 years of its history. But recently a section of local and foreign clique has become vociferously critical of the neutrality of Bangladesh’s justice delivery system, terming it partial. This criticism is primarily focused on trial of war crimes and crimes against humanity committed by the anti-liberation forces during the liberation war of Bangladesh in 1971. The trial is currently under way.

First verdict of war crimes tribunal

A section of people of this country had collaborated with the occupation forces of Pakistan in unleashing a reign of terror to thwart the emergence of Bangladesh as an independent and sovereign country in 1971. The exact number of people killed by the Pakistani occupation forces and their local collaborators is not known. Modest estimates put the figure at around thirty lakh. Apart from many other heinous war crimes and crimes against humanity, an estimated 200,000 Bengali women were raped by the Pakistani forces and their local collaborators during the nine month long liberation war. Many local collaborators of the Pakistani occupation forces fled after the emergence of Bangladesh while some chose to remain underground.

Demand of time: a neutral media

The Grand Alliance government led by Awami League has successfully completed four years of its tenure. Achievements during these four years far outweigh failures encountered by it during this period. But these achievements have not been properly highlighted by the media that chose to make mountain of a mole hill by giving negative publicity to the government’s failures. A large section of print and electronic media, particularly the latter, has focused the failures in a glaringly negative light so that the achievements look pale in comparison.

UK to continue to support Bangladesh

Dipanjan Roychoudhury: Speaking high about the tremendous progress Bangladesh has made under the leadership of Prime Minister Sheikh Hasina in achieving development and reducing poverty, the UK has renewed its unflinching support to the country. This has come at a time when efforts are being made to destabilise the present Government and throw the country into the cauldron of an anarchy.

শিবিরের তান্ডব দেশের বিভিন্ন জায়গায় ঃ আহত ১৫

ঢাকা, জানুয়ারি ২৮ ঃ জামাত-এ-ইসলামির ছাত্র শাখা ইসলামি ছাত্র শিবিরের সমর্থকদের সঙ্গে রাজধানী এবং তিনটি জেলার বিভিন্ন জায়গায় পুলিশের সংঘর্ষে আজ পাঁচজন পুলিশ কর্মী সহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন।

ডঃ নুরুল ইসলামের স্মৃতিতে শ্রদ্ধা জানালেন প্রধান মন্ত্রী

ঢাকা, জানুয়ারি ২৫ ঃ প্রয়াত জাতীয় অধ্যাপক ডঃ নুরল ইসলামের স্মৃতির উদ্দ্যশ্যে গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করলেন প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দেলওয়ার হোসেন সাঈদী: উন্মোচিত নির্মোক - সংবাদদাতা

জামাত-এ-ইসলামির প্রথম সারির নেতা এবং একজিকিউটিভ কমিটির সদস্য দেলওয়ার হোসেন সাঈদীর যৌন কেলেঙ্কারির বেশ কিছু অডিও সম্প্রতি ইন্টারনেটে আপলোড করা হয়েছে। ব্যাপারটি সাধারন মানুষ এবং বাংলাদেশের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের ্মধ্যে বিরাট চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। ফেসবুক এবং টুইটারের মত সোশাল মিডিয়া সাইটগুলিতে আপলোড করা এই অডিও তাঁরা বার বার করে শুনছেন এবং দেলওয়ারকে শাপ শাপান্ত করছেন। এঁদের অধিকাংশই দেলওয়ারের চরম শাস্তি দাবী করছেন, কারন তাঁদের মতে এই জামাত নেতা আসলে ইসলামের চাদরের আড়ালে একজন ব্যাভিচারী। ...

প্রকাশ্য সংঘাতের পথে এগিয়ে চলেছে দেশ

এক ভয়ানক রাজনৈতিক সংঘাতের দিকে এগিয়ে চলেছে দেশ। একদিকে সরকার বর্তমান প্রশাসনের অধীনেই আসন্ন সংসদীয় নির্বাচন করাতে বদ্ধপরিকর, অন্যদিকে প্রধান বিরোধী দল বি এন পি চায় যে ভাবেই হোক, নির্বাচনের আগে তদারকি সরকার প্রথা ফিরিয়ে আনতে অথবা একটি বিশেষ নির্বাচনী প্রশাসন গঠন করাতে। বি এন পি ঘোষণা করে দিয়েছে, তারা নতুন বছরের শুরুতে শেষ বারের মত সংসদের অধিবেশনে উপস্থিত থাকবে এবং তার পরে তাদের সাংসদরা এক সাথে পদত্যাগ করে সরকার যাতে তদারকি সরকারের দাবী মানতে বাধ্য হয়, তার জন্য এক ‘অপ্রতিরোধ্য’ গ্ণ আন্দোলন গড়ে তুলবেন। এই অবস্থায় মনে করা হচ্ছে, পরিস্থিতি সামাল দিতে সরকার কড়া পদক্ষেপ নেবে। কিছু বি এন পি নেতা আশংকা করছেন, সরকার জরুরী অবস্থা ঘোষণা করতে পারে। ...