All Column

BNP would not have hobnobbed with foreigners if they were strong: PM at press conference

Bus hits microbus in Tangail, six killed

BNP's politics is like a pole without electricity: Quader

Seven arrested for 'terrorist involvement'

Communal harmony is the eternal tradition of Bengalis: President

17 more Biranganas get recognition as freedom fighters

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময়কার আরও ১৭ জন দুর্ভাগা ধর্ষিতাকে স্বাধীনতা সংগ্রামীর স্বীকৃতি দিল বাংলাদেশ সরকার। ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯ তারিখে এই মর্মে একটি গেজেট নোটিফিকেশন জারি করা হয়েছে। ডিসেম্বর, ২০১৯-এ ঢাকায় বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাইটার্স কাউন্সিলের ৬৫তম বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। এর ফলে অন্যান্য স্বাধীনতাসংগ্রামীদের সমতুল্য রাষ্ট্রীয় সুযোগ সুবিধা এবং ভাতার অধিকারী মহিলা স্বাধীনতাসংগ্রামীদের সংখ্যা ৩২২ থেকে বেড়ে হোল ৩৩৯। ...

17 more Biranganas get recognition as freedom fighters

17 more unfortunate rape victims of 1971 Liberation war have been recognized by the Bangladesh government as freedom fighters. A gazette notification has been issued in this regard on December 25, 2019. The decision has been taken at the 65th meeting of Bangladesh Freedom Fighters Council, held in Dhaka in December 2019, taking the number of female freedom fighters from 322 to 339, entitling them to state facilities and allowances at par with the freedom fighters.

‘Biranganas’ of Bangladesh

বাংলাদেশ সরকারের লিবারেশন ওয়ার মন্ত্রক গত ৪ঠা অগাস্ট একটি গেজেট নোটিফিকেশনের মাধ্যমে আরও ৪৬ জন 'বীরাঙ্গনা'কে স্বাধীনতা সংগ্রামীর মর্যাদা দান করেছে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা সংগ্রামে তাঁদের উল্লেখযোগ্য অবদানের জন্য। দ্য ন্যাশনাল ফ্রিডম ফাইটার কাউন্সিল ঢাকায় টাদের ৬২তম বৈঠকে স্বাধীনতাসংগ্রামীর মর্যাদা দিয়ে বীরাঙ্গনাদের সংখ্যা বৃদ্ধি করে ৩২২ করেন।

‘Biranganas’ of Bangladesh

Liberation War Affairs Ministry of Bangladesh government issued a gazette notification on August 4 extending recognition to 46 more ‘Biranganas’ (war heroines) as freedom fighters for their significant contribution in the country’s liberation war in 1971. The National Freedom Fighter Council, at its 62nd meeting held in Dhaka, decided to confer freedom fighter status to these war heroines raising their number to 322. All of them are now entitled to state facilities and allowances at par with male freedom fighters.