Bangladesh
চিকিৎসা সেবায় অনেক দূর এগিয়ে গেছে বাংলাদেশ: শেখ হাসিনা

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 29 Aug 2018

Bangladesh has reached new height in Healthcare: Hasina
নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা, আগস্ট ৩০: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, চিকিৎসা সেবায় অনেক দূর এগিয়ে গেছে বাংলাদেশ।

 অনেক ডাক্তার-নার্সকে বিদেশ থেকে ট্রেনিং দিয়ে আনা হয়েছে। বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা সেবার মানও বেড়েছে। চোখ, গলা, নাক ও কানসহ দেহের প্রতিটি অঙ্গের বিষয়ে দেশে বিশেষায়িত হাসপাতাল গড়ে তোলা হবে।

 

বুধবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গোপালগঞ্জে প্রতিষ্ঠিত বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব চক্ষু হাসপাতাল ও ট্রেনিং সেন্টার উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন। গোপালগঞ্জ জেলার চারপাশে ৮টি জেলার ২০টি উপজেলায় কমিউনিটি সেন্টার স্থাপন করা হয়। এ সময় ভিডিও কনফারেন্সে টুঙ্গিপাড়া, কোটালিপাড়া, লোহাগড়া, কাশিয়ানিসহ কয়েকটি উপজেলার উপকারভোগীদের সঙ্গে কথা বলেন শেখ হাসিনা। উপকারভোগীরা বলেন, বাড়ির কাছে কমিউনিটি সেন্টার হওয়ায় এলাকার অনেক মানুষ উপকার পাচ্ছেন। অনেক অন্ধের চোখে আলো ফুটছে। যারা এক সময় চোখে দেখতে পারতো না তারা এখন চোখে দেখছে চিকিৎসার কারণে।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, চিকিৎসা সেবা মহৎ কাজ। এ ছাড়া দেশের মানুষের ভালো মন্দ দেখা আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। দেশের মানুষ যেন সুখে শান্তিতে বসবাস করতে পারে, ভালো থাকতে পারে সে লক্ষ্য নিয়েই আমরা কাজ করছি। বঙ্গবন্ধু দেশের মানুষকে যেভাবে রাখার স্বপ্ন দেখেছিলেন তার স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করছি। তিনি বলেন, গোপালগঞ্জে যে চক্ষু হাসপাতাল উদ্বোধন করা হলো এর মাধ্যমে চারপাশে ৮টি জেলার লাখ লাখ রোগী চিকিৎসা সেবা পাবে। এখানকার ডাক্তার এবং নার্সদের বিদেশ থেকে ট্রেনিং দিয়ে আনা হয়েছে। ফলে এ হাসপাতালের চিকিৎসার মানও ভালো হবে। অভিজ্ঞ ডাক্তার এবং নার্সদের কারণে আধুনিক এবং উন্নত চক্ষু চিকিৎসা সম্ভব হবে।


শেখ হাসিনা বলেন, রাজনীতি করি দেশের মানুষের কল্যাণের জন্য। রাজনীতিতো ভোগ বিলাসের বস্তু নয়। দেশের জনগণ ভালো থাকবে, সুখে শান্তিতে থাকবে এটাই তো আমাদের চাওয়া। বঙ্গবন্ধু দেশের মানুষের খাদ্য, বস্ত্র, শিক্ষা, বাসস্থান ও চিকিৎসা নিশ্চিত করতে চেয়েছিলেন। আমরা তা করতে পারছি। আগামীতে দেশের জনগণ যদি ক্ষমতায় আনে তাহলে এ উন্নয়ন এবং অগ্রগতির ধারা অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, ভোট দেয়া না দেয়া জনগণের রাজনৈতিক অধিকার। ক্ষমতা আমার কাছে কোনো ভোগের বস্তু না, ক্ষমতা হচ্ছে দায়িত্ব পালনের। কাজেই সেই দায়িত্বটাই পালন করতে চাই। আমি সব সময় মনে রাখি যে, আমার বাবা দেশটাকে স্বাধীন করে দিয়ে গেছেন, তাই জনগণের সেবা করাটা আমার প্রথম কর্তব্য।


শেখ হাসিনা বলেন, জনগণের সেবা করেই যাব। জনগণকে উন্নত জীবন দেব, খাদ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করব। রাজনৈতিক নেতা হিসেবে এটা আমাদের অঙ্গীকার। আর এই অঙ্গীকার আমাদের পূরণ করতে হবে। 




Video of the day
More Bangladesh News
Recent Photos and Videos

Web Statistics