Finance
সরকারি শিল্পের সমস্যা নিয়ে বিরক্ত প্রকাশ প্রধানমন্ত্রীর

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 10 Jan 2020

PM Hasina expresses her displeasure over problems in government industry
নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা, জানুয়ারি ১০ : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাট ও বস্ত্র শিল্পের কথা উল্লেখ করে বলেছেন, সরকারিভাবে কোনো শিল্প চালাতে গেলে সেটা আলোর মুখ দেখে না। কিন্তু বেসরকারি শিল্প ঠিকই লাভ করে বছরের পর বছর টিকে থাকে। তিনি বলেন, সরকারি শিল্পে সমস্যাটা কোথায় বুঝি না। বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত বস্ত্রমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, আজ বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। ২১ বছর পর আমরা যখন ৯৬ সালে সরকারে আসি তখন আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করা ছাড়াও দেশকে অনেক দিক দিয়ে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিলাম। কিন্তু মাঝখানে সাত বছর আমরা ক্ষমতায় ছিলাম না। তখন আবার পিছিয়ে গেছে। মানুষের মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি পেয়ে ১৯০৯ মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রবৃদ্ধি এখন ৮ দশমিক ১৫ ভাগে বৃদ্ধি পেয়েছে। সাথে সাথে মূল্যস্ফীতি আমরা পাঁচ ভাগে নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছি। উচ্চ প্রবৃদ্ধি এবং মুদ্রাস্ফীতি নিম্নভাগে, এটা ভালো অর্থনীতির একটা সুফল।

তিনি বলেন, দেশের উন্নয়নে তৈরি পোশাক শিল্প যথেষ্ট অবদান রেখে যাচ্ছে। শুধু পোশাক খাত নয়, অন্যান্য শিল্পেও আমরা সুবিধা দেয়ার চেষ্টা করছি। তারা যেন আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশের বাজারে তাদের তৈরি পণ্য এক্সপোর্ট করতে পারে। সাথে সাথে বাংলাদেশে একটা বিশাল বাজার রয়েছে। এ বাজারটার চাহিদাও যেন মেটাতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০০৯ সালে আমি যখন সরকার গঠন করি, তখন পোশাক শ্রমিকদের মজুরি ছিল মাত্র ১ হাজার ৬শ টাকা। পরে তাদের বেতন আট হাজার টাকায় উন্নীত করা হয়েছে। আমি জানি না পৃথিবীর কোনো দেশে একসাথে এত টাকা বেতন বাড়ায় কি না। শুধু পোশাক শিল্প নয়, অন্যান্য সেক্টরেও আমরা সকলেরই বেতন-ভাতা বৃদ্ধি করেছি। এছাড়া পোশাকশিল্পের সদস্যরা যাতে নিরাপদে বসবাস করতে পারে সেজন্য তাদের হোস্টেল, ডরমেটরি নির্মাণ করে দিয়েছি। কোনো কোনো ক্ষেত্রে তাদের আমরা ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করে দিয়েছি। এরকম বিভিন্নভাবে আমরা তাদের সহযোগিতা করে যাচ্ছি । এছাড়া আমরা বেশকিছু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তুলেছি। যেখান থেকে শিক্ষা নিয়ে দেশে এবং বিদেশে ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে।

বৃহস্পতিবার শুরু হওয়া বস্ত্রমেলা চলবে ১১ জানুয়ারি পর্যন্ত। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এই মেলা চলছে।

বস্ত্রখাতের উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখায় অনুষ্ঠানে ৯টি প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা হিসেবে পদক তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্মরক তুলে দেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী।




Video of the day
More Finance News
Recent Photos and Videos

Web Statistics