Finance
ভারতীয়দের উদ্যোক্তাদের জন্য পৃথক অর্থনৈতিক অঞ্চল

Bangladesh Live News | @banglalivenews | 23 Jan 2020

Bangladesh: Indian investors to have separate zone
নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা, জানুয়ারি ২৩ : ভারতীয় উদ্যোক্তাদের পৃথক অর্থনৈতিক অঞ্চলের সুবিধা দেয়া হবে। বুধবার তিন দিনব্যাপী ভারতীয় ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য প্রদর্শনী ‘ইন্ডি বাংলাদেশ ২০২০’ এর উদ্বোধনকালে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এ কথা জানান। রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। শিল্পমন্ত্রী এ অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগ করে উৎপাদিত পণ্য ভারতে রফতানির সুবিধা নিতে দেশটির উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মুনতাকিন আশরাফ, ভারতের ইঞ্জিনিয়ারিং এক্সপোর্ট প্রমোশন কাউন্সিলের চেয়ারম্যান রভি শেহগাল ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান মহেশ কে দেশাই প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


শিল্পমন্ত্রী বলেন, দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণে বাংলাদেশ অত্যন্ত উদার নীতি গ্রহণ করেছে। ফলে বাংলাদেশ ইতিমধ্যে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য আকর্ষণীয় গন্তব্যে পরিণত হয়েছে। বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে সরকার আকর্ষণীয় প্রণোদনাসহ ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছে। এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগকারীদের জন্য বিডা প্রাথমিক তথ্য সেবা থেকে শুরু করে নিবন্ধন পর্যন্ত সর্বত্মক সহায়তা দিচ্ছে। ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের সময় অনেক স্বনামধন্য উদ্যোক্তারা বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন। এর ফলে অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশে ভারতীয় বিনিয়োগ ৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।


ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় ভারত বাংলাদেশের বৃহত্তম বাণিজ্যিক অংশীদার। দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ ক্রমেই বাড়ছে এবং ব্যবসা ও বিনিয়োগের জন্য নতুন নতুন ক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে।


ভারতীয় হাইকমিশনার আরও বলেন, বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশের উন্নয়ন অভিযাত্রায় ভারতের অংশীদারিত্ব বাড়বে। এ লক্ষ্যে ভারত ভবিষ্যতে বাংলাদেশে সরাসরি বিনিয়োগ বাড়াবে। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির ধারাকে এগিয়ে নিতে প্রকৌশল শিল্পের বিকাশ গুরুত্বপূর্ণ।

এ ধরনের প্রদর্শনী আয়োজন দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য বাড়ানোর সম্ভাবনা জোরদারের পাশাপাশি বৈশ্বিক সাপ্লাই চেইনে অংশীদারিত্বের সুযোগ শক্তিশালী করবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।


তিন দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে। এতে ভারতের শতাধিক প্রকৌশল উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে। এসব প্রতিষ্ঠান তাদের উৎপাদিত পণ্য ও প্রযুক্তি প্রদর্শন করছে। এ প্রদর্শনী প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।




Video of the day
More Finance News
Recent Photos and Videos

Web Statistics