Column
নতুন পর্যায়ে গেল বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক

03 Jul 2015

#

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সম্প্রতি বলেছেন যে বাস্তববাদী এবং পরিণত দৃষ্টিভঙ্গী নিয়ে দু'দেশের সম্পর্ক একটি নতুন স্তরে উন্নীত হয়েছে। জোরের সঙ্গে তাঁরা দু'জনেই আবারও ঘোষণা করেছেন যে চরমপন্থা ও সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলা এবং নিজের দেশের মাটিতে প্রতিবেশী দেশের বৈরী শক্তিকে কাজকর্ম চালাতে না দেওয়ার ব্যাপারে উভয় রাষ্ট্রই দায়বদ্ধ। শক্তি, বাণিজ্য এবং যোগাযোগ- ব্যবস্থা ক্ষেত্রে সহযোগিতা বাড়াতে একমত হয়েছে দু দেশই। গত ৭ই জুন ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফর শেষে একটি যৌথ বিবৃতিতে এই ঘোষণাগুলি করা হয়েছে।

 উপ-আঞ্চলিক ক্ষেত্রে সহযোগিতা এবং যোগাযোগ বৃদ্ধির  ক্ষেত্রে সমর্থন দেওয়ার জন্য শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। ভারতের সঙ্গে উন্নততর দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক গড়ে তোলায় তাঁর দায়বদ্ধতা এবং এ বিষয়ে বহু  অসাধারণ উদ্যোগ নেওয়ার জন্যও তাঁর প্রশংসা করেন তিনি। শেখ হাসিনা জানান, তাঁর দৃঢ় বিশ্বাস মোদীর নেতৃত্ব বাংলাদেশ ও ভারতের পারস্পরিক সম্পর্ককে অতীব উন্নত স্তরে নিয়ে যেতে নতুন উৎসাহ যোগাবে। 


নরেন্দ্র মোদীর এই স্মরণীয় সফরকালে দু\'দেশের মধ্যে ২২টি মেমোর‍্যান্ডাম অফ আন্ডারস্ট্যান্ডিং, প্রোটোকল এবং চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। প্রথমত, একটি স্থল সীমান্ত চুক্তি হয়েছে। এর ফলে ছিটমহল বিনিময় করে দু\'দেশের ভৌগোলিক আয়তন বাড়বে। এতে ভারতের থেকে ১০,০০০ একর বেশি জমি পেয়ে বেশি লাভবান হবে বাংলাদেশ। শুধু তাই নয়, এর ফলে দু\'দেশেরই সীমান্ত ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে অনেক সুবিধা হবে এবং অবসান ঘোটবে দু\'দিকে থাকা ছিটমহল বাসিন্দাদের মানবিক সংকটের। দুই প্রধানমন্ত্রীই স্থল সীমান্ত চুক্তি দ্রুত রূপায়নের জন্য তাঁদের অফিসারদের নির্দেশ দিয়েছেন।

নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়গুলির ব্যাপারে দু\'দেশের মধ্যে অতুলনীয় স্তরে সহযোগিতার জন্য দুই প্রধানই সন্তোষ প্রকাশ করেছেন এবং সব ধরণের চরমপন্থা ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে দ্ব্যর্থহীন ভাষায় তাঁদের আপোসহীন অবস্থানের কথা আরও একবার জানিয়ে দিয়েছেন। যে সব দল অথবা সংগঠন সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে যুক্ত, তাদের ব্যপারে তথ্য আদানপ্রদান এবং সহযোগিতার ব্যাপারেও তাঁর খুশি। নিরাপত্তা বিষয়ক ব্যাপারে বাংলাদেশ যে সহযোগিতা করেছে তার প্রশংসা করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

ভূয়ো নোট এবং মানুষ পাচার রোধে এবং সেই সঙ্গে উপকূল রক্ষী বাহিনীদের মধ্যে সহযোগিতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে দু\'দেশের মধ্যে মৌ সম্পাদনে দুই প্রধানমন্ত্রীই সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। আন্তঃসীমান্ত এলাকায় অপরাধমূলক কাজকর্ম এবং জীবনহানি রোধে উন্নততর ব্যবপস্থাপনার লক্ষ্যে কো অর্ডিনেটেড বর্ডার ম্যানেজমেন্ট প্ল্যানের কার্যকরী রূপায়নের উপর জোর দিয়েছেন তাঁরা। 

উনিশশো একাত্তর সালে বাংলাদেশের গৌরবময় স্বাধীনতা সংগ্রামে ভারতের বিশাল অবদানের কথা স্মরণ করেন শেখ হাসিনা। অন্যপক্ষে, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপায়ীকে \'বাংলাদেশ লিবারেশন ওয়ার\' সম্মানে ভূষিত করার প্রশংসা করেন মোদী। বাংলাদেশ সরকার বাজপায়ীকে এই সম্মান দিয়েছিল সে দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে তাঁর অসাধারন অবদানের স্বীকৃতি হিসাবে।

 মোদীর সফরের ফলে বাংলাদেশের লাভের পরিমাণ অনেক। প্রথমতঃ, ভারত থেকে দু\'বিলিয়ন ডলারের ঋণ পা্বে তারা। অ্ত্যন্ত অল্প সুদে এবং দীর্ঘকালীন ভিত্তিতে দেওয়া হয়েছে এই ঋণ, যেখানে বাংলাদেশের মত কোনও দেশকে এক বিলিয়ন ডলারের কোনও ঋণ দিতে গেলে বিশ্বব্যাংক নানা রকমের শর্ত আরোপ করে থাকে। ভারত এর আগে বাংলাদেশকে এক বিলিয়ন ডলারের একটি ঋণ দিয়েছিল গত বছর। সুতরাং দীর্ঘ এবং মধ্যকালীন ভিত্তিতে বাংলাদেশ এখন ভারতের থেকে  আর্থিক সহায়তার সুযোগ পাবে । এ পর্যন্ত দু\'মিলিয়ন ডলারই কোনও দেশকে ভারতের দেওয়া সব থেকে বেশি পরিমাণের ঋণ এবং সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশ আদর্শ নির্বাচন। 

বাংলাদেশের রফতানি দ্রব্যগুলির মানের শংসাপত্র পেতেও ভারত সহায়তা করবে। এ ছাড়া ভারতীয় বাণিজ্যিক সংস্থাগুলি বাংলাদেশের দু\'টি ইকনমিক জোনে তাদের উৎপাদন কেন্দ্র খুলবে । এর ফলে যেমন স্থানীয় কর্মসংস্থান বাড়বে এবং প্রযুক্তি হস্তান্তরে সুবিধা হবে, তেমনি কমবে দু\'দেশের মধ্যে থাকা বাণিজ্যিক ঘাটতি।  \'ব্লু ইকনমি\' অর্থাৎ সমুদ্র সম্পদ কাজে লাগানোর ক্ষেত্রেও ভারতের সহায়তা পাবে বাংলাদেশ। একটি প্রোটোকল অনুযায়ী,আবহাওয়া পরিবর্তনের সমস্যা মোকাবিলার ক্ষেত্রেও ভারত সাহায্য করবে। অপর একটি চুক্তি অনুযায়ী, আগামী দু\'বছরের মধ্যে ভারত থেকে বাংলাদেশে ১,১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে। দু\'দেশের মধ্যে বিনিয়োগ এবং পর্যটন ব্যবসার উন্নতির জন্য বাংলাদেশের সিলেট এবং খুলনায় দু\'টি কনস্যুলার অফিসও খুলবে ভারত।

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর সফরের ফলে যে অপরিসীম সুবিধা পেতে চলেছে বাংলাদেশ, তা সে দেশের ভারত বিরোধীদের পক্ষেও খাটো করে দেখানো মুশকিল।



Video of the day
More Column News
Recent Photos and Videos

Web Statistics