Column
ঢাকা-কলকাতা সংযোগকারী ভলভো বাস পরিষেবা

29 Oct 2015

#

ঢাকা হয়ে কলকাতা ও আগরতলার মধ্যে বাস পরিষেবা চালু করার চার মাস পর ১৬ই অক্টোবর তারিখে ওই একই রুটে ভলভো বাস চলাচল শুরু করল বাংলাদেশ এবং ভারত। এই পরিষেবার জন্য বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে বাসে নিরাপত্তাকর্মী রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।
ত্রিপুরা রোড কর্পোরেশনের আন্তর্জাতিক বাস টার্মিনাসে আড়ম্বড়পূর্ন অনুষ্ঠানের মধ্যে ত্রিপুরার পরিবহণ মন্ত্রী মানিক দে এই পরিষেবার উদ্বোধন করেছেন।
 
ত্রিপুরা রোড কর্পোরেশনের আন্তর্জাতিক বাস টার্মিনাসে আড়ম্বড়পূর্ন অনুষ্ঠানের মধ্যে ত্রিপুরার পরিবহণ মন্ত্রী মানিক দে এই পরিষেবার উদ্বোধন করেছেন।.
 
আগরতলা থেকে প্রথম ভলভো পরিষেবায় যাত্রী হিসেবে অংশ নিতে পেরে আনন্দ প্রকাশ করে কয়েক জন জানিয়েছেন এ যেন তাঁদের কাছে স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মত ব্যাপার। বাংলাদেশ-জাত কানাডার নাগরিক আবদুস সালাম বলেছেন, "এ কথা জেনে আমি গর্বিত যে, এই বাস পরিষেবা বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে সম্পর্ককে উন্নত করবে। এর ফলে  ব্যবসা-বাণিজ্য এবং অন্যান্য সামাজিক কর্মকান্ডেরও উন্নতি ঘটবে।"
 
ত্রিপুরার পরিবহণ সচিব সমরজিত ভৌমিক বলেছেন, "বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে স্বাক্ষরিত প্রোটোকল অনুযায়ী যথেষ্ট পরিমাণে নিরাপত্তার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে এই পরিষেবার জন্য।  বাংলাদেশের ভিতর দিয়ে যাওয়ার সময় দু'জন বাংলাদেশি নিরাপত্তা রক্ষী থাকবেন বাসে। সাম্প্রতিক কিছু হিংসাত্মক ঘটনার কথা মাথায় রেখে এ ছাড়াও বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। আখাউড়া থেকে ঢাকা হয়ে বেনাপোল-পেট্রাপোল পর্যন্ত বাসের সঙ্গে সঙ্গে যাবে একটি 'সিকিউরিটি ভেহিকল।'
 
 ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জুন মাসে ঢাকা সফরের সময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে যৌথ ভাবে ঢাকা-শিলং-গৌহাটি এবং কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা বাস পরিষেবার উদ্বোধন করেছিলেন। ঢাকা-শিংল-গৌহাটি পরিষেবা এখনও চালু না হলেও কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা রুটে বাস চলছে নিয়মিত ভাবে।
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জুন মাসে ঢাকা সফরের সময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে যৌথ ভাবে ঢাকা-শিলং-গৌহাটি এবং কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা বাস পরিষেবার উদ্বোধন করেছিলেন। ঢাকা-শিংল-গৌহাটি পরিষেবা এখনও চালু না হলেও কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা রুটে বাস চলছে নিয়মিত ভাবে।
 
 
 
ঢাকা-শিলিং-গৌহাটি রুটে  বাস চালাবে বাংলাদেশে সরকার। সপ্তাহে তিন দিন করে গৌহাটি এবং ঢাকা থেকে বাস ছাড়বে এই রুটে চলার জন্য। 
 
পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধি করে দুই প্রতিবেশী রাষ্ট্রের মানুষের মধ্যে সংযোগের উন্নতি ঘটানোর উদ্দেশ্যেই এই বাস পরিষেবার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা বাস রুট পশ্চিমবঙ্গ এবং তিন দিকেই বাংলাদেশ ভূখন্ড দিয়ে ঘেরা ত্রিপুরার মধ্যে দূরত্বকে প্রকৃতপক্ষে অর্ধেক করে দিয়েছে।



Video of the day
More Column News
Recent Photos and Videos

Web Statistics